Breaking News
Home > স্বাস্থ্য তথ্য > একবার মাখলেই বয়স কমবে ১০ বছর !

একবার মাখলেই বয়স কমবে ১০ বছর !

মুখে বলিরেখা ও কুঁচকানো ভাব কেউই পছন্দ করে না। কিন্তু বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সবারই মুখে ভাঁজ পড়ে। কারোর বয়স হয়েছে এটা থেকে সহজেই বোঝা যায়। কেউ এটা থেকে রক্ষা পান না।

বয়সের ছাপ কমাতে অনেকে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। কিন্তু এতে অনেক সময় হিতে বিপরীত হয়।

তবে আপনার ত্বক আরো উজ্জ্বল ও প্রাণদীপ্ত করতে বিশেষজ্ঞরা গোপন একটি রহস্যের কথা বলেছেন, যেটা জাপানি নারীরা করে থাকেন। আপনি হয়তো দেখবেন- বয়স বাড়লেও জাপানি নারীরা বুড়িয়ে যান না। তাদের চির তরুণীর মতো লাগে, টাইট ত্বকে ছড়িয়ে পড়ে সৌন্দর্যের আভা।

এ পদ্ধতি মানলে মাত্র এক সপ্তাহে আপনিও জাপানি নারীদের মতো হবেন প্রাণবন্ত এবং পেতে পারেন ‘চির যৌবন’। এ জন্য আপনাকে বেশি অর্থ বা উপাদান দরকার হবে না। চায় শুধু ভাত। আপনার ত্বক আরো উজ্জ্বল ও কুঁচকানো ভাব দূর করতে কাজে দেবে ভাত। আপনার ত্বককে সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার করবে এবং মুখে থাকা কালো দাগ দূর করে সতেজতা বাড়াবে ভাতের উপাদান।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ভাতে প্রচুর পরিমাণ লাইনোলিক অ্যাসিড থাকে। এতে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাউডারও বিদ্যমান। লাইনোলিক অ্যাসিড ত্বকের কোষে কোলাজেন উৎপাদন করে। এটা আপনার ত্বকে ভাঁজ পড়া ও কুঁচকে যাওয়া রোধ করে আপনাকে তরুণী করে তোলে। সপ্তাহে একবার করে মাখলে আপনার ১০ বছর বয়স কমবে!

যেভাবে উপাদানটি তৈরি করবেন?

তিন টেবিল চামচ ভাত মধ্যম গরমের এক কাপ পানির মধ্যে ঢালুন। দুই থেকে তিন মিনিট সেখানে রাখুন। এপর নাড়ুন। এর সঙ্গে এক টেবিল চামচ দুধ ও মধু যোগ করুন। এগুলো ভালো করে মেশান এবং মুখমণ্ডলে ওই উপাদান ভালো করে লাগিয়ে দিন। এটা না শুকানো পর্যন্ত ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর পানি দিয়ে মুখমণ্ডল ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করুন দেখবেন- আপনি দিন দিন বুড়িয়ে যাওয়া নয়, আরো তরুণী হয়ে উঠছেন।

বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন মজার মজার রান্নাকরার অসাধারন সব রেসিপি এবং রুপ লাবণ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের দুটি পেজ লাইক দিন!

Check Also

1-2-25

রাত্রে শোওয়ার ঘরে মোবাইল রেখে ঘুমোন? মৃত্যু আপনার ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে। কিভাবে জানতে চান?

মোবাইল ফোনের সর্বক্ষণের সঙ্গ, বিশেষত রাত্রে ঘুমনোর সময়ে শরীরের কাছাকাছি মোবাইল ফোন রাখা অত্যন্ত বিপজ্জনক। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *