Breaking News
Home > রেসিপি > রেস্টুরেন্ট স্বাদের বারবিকিউ এবার তৈরি হবে আপনার রান্নাঘরেই

রেস্টুরেন্ট স্বাদের বারবিকিউ এবার তৈরি হবে আপনার রান্নাঘরেই

চিকেন বারবিকিউ হোক অথবা প্রণ যেটাই হোক না কেন বারবিকিউ খেতে সবাই পছন্দ করেন। দোকানে গেলে অনেকেই চিকেন বারবিকিউ অর্ডার করে থাকেন। বাসায় তৈরি করলে দোকানের মত কয়লার স্বাদটি পাওয়া যায় না। এবার ঠিক দোকানের স্বাদ পাবেন ঘরে তৈরি করা বারবিকিউতে। আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক মজাদার রেসিপিটি।

amitumi_bar-b-q-at-your-kitchen

উপকরণ:

৮টি মাঝারি আকৃতির খোসা ছড়ানো চিংড়ি মাছ

২৫০ গ্রাম হাড়ছাড়া মুরগির মাংস

১ কাপ পনির

২ টেবিল চামচ লাল রসুনের চাটনি

৩/৪ থেকে ১ কাপ দই

১ টেবিল চামচ সরিষা তেল

১ কাপ ক্যাপসিকাম কিউব করে কাটা

মাখন

লেবুর খোসা

পেঁয়াজের রিঙ (সাজানোর জন্য)

প্রণালী:

১। রসুন, শুকনো মরিচের পেস্ট এবং টক দই একটি পাত্রে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এর সাথে সরিষা তেল যোগ করে আরও ভাল করে মিশিয়ে নিন।

২। এবার তিনটি ভিন্ন ভিন্ন পাত্রে দই এবং রসুনের মিশ্রণটি তিন ভাগে ভাগ করে ফেলুন।

৩। একটি পাত্রে চিংড়ি মাছ, আরেকটিতে মুরগির মাংস এবং আরেকটিতে ক্যাপসিকাম এবং পনির দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

৪। এবার একটি ফুলের টব দুপাশে গর্ত করে নিন। এটি ১/৪ অংশ পর্যন্ত বালি দিয়ে ভরে ফেলুন। বালির উপর একটি অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে ঢেকে দিন। এর উপর কিছু কয়লার টুকরো দিয়ে দিন।

৫। কয়লায় কিছু তেল ঢেলে দিন, কাগজ দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে ফেলুন।

৬। কয়লার ঢালার সময় লক্ষ্য রাখবেন কয়লা দিয়ে যেন গর্ত দুটি বন্ধ না হয়ে যায়।

৭। কাবাবের শিকে মুরগির টুকরোগুলো ঢুকিয়ে দিন। আরেকটি শিকে চিংড়ির টুকরো। আরেকটি শিকে পনির এবং ক্যাপসিকামের টুকরোগুলো ঢুকিয়ে দিন।

৮। তারপর শিকগুলো কয়লার উপর দিয়ে দিন। মাঝে মাঝে মাখন অথবা তেল ব্রাশ করে দিন মাংস, চিংড়ির উপর।

৯। ব্যস তৈরি হয় গেল মজাদার বারবিকিউ।

টিপস

১। রসুনের, শুকনো লাল মরিচ, লেবুর রস (অল্প পরিমাণে), জিরা গুঁড়ো মিশিয়ে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে তৈরি করে ফেলতে পারেন লাল রসুনের চাটনি।

২। টকদই থেকে ভাল করে পানি ঝরিয়ে ফ্রিজে ৪-৫ ঘন্টা রেখে তারপর ব্যবহার করুন।

রূপচর্চা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন তথ্যের জন্য আমাদের পেজ স্বাস্থ্য সেবা ।। Health Tips এ লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন।

Check Also

যে উপকারী মসলাগুলো কমায় ক্যান্সারের ঝুঁকি!

ক্যান্সারের মতো মারাত্মক মরণব্যধির কথা আমাদের কারোরই অজানা নেই। আজ পর্যন্ত প্রতিষেধক তৈরি না হওয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *