Breaking News
Home > অবাক বিশ্ব > ধেয়ে আসছে ক্ষতিকর মহাজাগতিক রশ্মি! মোবাইল বন্ধ রাখার

ধেয়ে আসছে ক্ষতিকর মহাজাগতিক রশ্মি! মোবাইল বন্ধ রাখার

গত কয়েকদিন ধরে একটি খবর ভাইরাল হয়ে দেখা দিয়েছে। আর সেটি হলো পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে ক্ষতিকর মহাজাগতিক রশ্মি। যেটি আজ রাত ১২.৩০ মিনিট হতে রাত ৩.৩০ মিনিট পর্যন্ত মোবাইল বন্ধ রাখুন! এমন খবরটি শুনা যাচ্ছে গত কয়েক দিন যাবত !

‘আজ রাতে পৃথিবীতে ধেয়ে আসছে ক্ষতিকর এক উচ্চ তেজস্ক্রিয়তাসম্পন্ন কসমিক রে বা যাকে বলা হয়, মহাজাগতিক রশ্মি। সুতরাং ক্ষতিকর এই রশ্মি হতে রক্ষা পেতে হতেল রাত ১২.৩০ মিনিট হতে ৩.৩০ মিনিট পর্যন্ত আপনার মোবাইল ফোন বন্ধ রাখুন কিংবা শরীরের নিকট হতে দূরে কোথাও রাখুন।’

এমন এক খবরে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। অনেকেই এই খবরটিকে নিতান্তই গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছেন। আবার কেও কেও দাবি করছেন খবরটি গুজব নয়, সত্যি।

কিন্তু এমন একটি খবরট কোথা থেকে এলো? এই খবরের সত্যতা কতটুকু? তবে এখন পর্যন্ত এর কোনো সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি। যদিও বলা হচ্ছে, এমন খবর নাকি ‘নাসা’ প্রেস বিজ্ঞপ্তি আকারে দিয়েছে। আর সেই খবর নাকি প্রকাশ করেছে ‘বিবিসি’, ‘রয়টার্স’ এবং ‘সিএনএন’। তবে ‘নাসা’র উল্লেখিত সংবাদ মাধ্যমগুলোর ওয়েভ সাইডে এ খবরের কোন সত্যতা এখন পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়।

প্রশ্ন দেখা দিয়েছে যে, তাহলে কারা এমন একটি খবরটি ছড়িয়ে দিচ্ছেন? এর নেপথ্যে কি কোনো কারণ রয়েছে? এর আগেও একবার বলা হয়েছিলো ধেয়ে আসছে ক্ষতিকর মহাজাগতিক রশ্মি? মোবাইল বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছেন । তখন সেই খবর ছড়িয়েছিল NEWSWATCH33.COM নামের একটি ওয়েব সাইট। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের ইনবক্সে আজ হয়তো আপনি এরকম কোনো মেসেজ পেয়েছেন। এবং সেটা বিশ্বাস করে আতঙ্কিত হয়ে মেসেজটি প্রিয়জনকে ফরোয়ার্ডও করেছেন। কিন্তু এটা নিছকই একটা গুজব। গত ৭ বছর ধরে বিভিন্ন সময়ে এই ধরনের মেসেজ দিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। বাস্তবে এই মেসেজের কোনো ভিত্তিই নেই।

আজ আবার নতুন করে একই ধরনের গুজব ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। আর সে কারণে সংবাদ মাধ্যমগুলোতেও এ ধরনের কিছু খবর এসেছে। সিঙ্গাপুর টিভির খবরের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে যে, ‘রাত ১২.৩০ মিনিট হতে ৩.৩০ মিনিট পর্যন্ত মোবাইল ফোন বন্ধ রাখতে। এই মেসেজের সত্যতা সম্পর্কে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের এক কর্মকর্তা সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘এই মেসেজের আদোতে কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই। এটি পুরোটাইেএকটা গুজব।’

অ্যাটমিক এনার্জি রিসার্চ এস্টাবলিশমেন্টের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সৈয়দ মাহমুদ হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘ওজোন স্তর ভেদ করে কসমিক রে বা মহাজাগতিক রশ্মি সব সময়ই পৃথিবীর ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে থাকে। কিন্তু তা ক্ষতিকর মাত্রায় নয়। তবে মহাজগতে কোনো বিস্ফোরণ ঘটলে ‘কসমিক রে’ প্রবাহের মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। যেহেতু এই ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। সুতরাং ‘কসমিক রে’ প্রবাহের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনাও নেই। কিন্তু এর সঙ্গে মোবাইল ফোন বন্ধ বা খোলা রাখার কোনোই সম্পর্ক নেই।’

Check Also

images1

বিয়ে হতে না হতেই চমকে দিল সবাইকে, না দেখলে মিস, একবার হলেও দেখে নিন লাইভ ভিডিও সহ

বিয়ে হতে না হতেই চমকে দিল সবাইকে, না দেখলে মিস, একবার হলেও দেখে নিন লাইভ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *